রমজানে রোজা রাখছেন অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়

34

রমজানে রোজা রেখেছেন ভারতের জনপ্রিয় অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়। এ নিয়ে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পশ্চিমবঙ্গের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

খবরে বলা হয়, ১ মাসের (রমজানের) এই বিশেষ উপবাস (রোজা) নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করছেন তিনি। কেন? ভাস্বরের যুক্তি, ‘‘মন থেকে চাই হিন্দু-মুসলিম এক হোক। এক সঙ্গে সবাই সব পরব মানুন।’’

একই সঙ্গে তার প্রথম রোজা উৎসর্গ করেছেন কাশ্মীরীদের জন্য, আর ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করা সমস্ত মুসলিম মেকআপ আর্টিস্টদের। তার কথায়, ‘‘আমাদের ইন্ডাস্ট্রির অনেক মুসলিম মেকআপ আর্টিস্ট, ড্রেসার রোজা রেখে কাজ করেন দিনের পর দিন। আমি না হয় আমার মতো করে ওদের প্রতি আমার ভালবাসা, সম্মান ফেরত দিলাম!’’

আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, অনেক দিন ধরেই কাশ্মীরী ভাষা শিখছেন অভিনেতা। সম্প্রতি, ইনস্টাগ্রামে রমজানের শুভেচ্ছাও জানিয়েছেন তিনি। কাশ্মীরী ভাষায় গানও গেয়েছেন। যা শুনে আপ্লুত সেখানকার বিখ্যাত শিল্পী ইশফাক কাওয়া।

অভিনেতা ভাস্বর বলেন, ‘ইনস্টাগ্রামে ইশফাক কাওয়া নিজে যোগাযোগ করেন। কাশ্মীরে যাওয়ার আমন্ত্রণও জানিয়েছেন।’’

শুধু ২ ধর্মের মানুষের মিলনই কাম্য নয় অভিনেতার। ভারত-পাকিস্তানের দ্বন্দ্বও মেটাতে চান তিনি।

তিনি বলেন, ‘‘দেশভাগ আমায় বরাবর কষ্ট দেয়’’।

ভারত-পাকিস্তান আলাদা হওয়ার সেই অনুভূতি থেকেই দূরত্বের অবসান চেয়ে পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের উদ্দেশে সম্প্রতি টুইটও করেছেন তিনি।

ভাস্বর ব্রাহ্মণ। রোজা রাখায় বাবা, পরিবারের বাকি সদস্যরা আপত্তি জানাননি?-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমার উপোস বাবার নাপছন্দ। পরব মানা নয়।’

ভাস্বরের জানান, লোকনাথ বাবা নিজেও নাকি কোরান পাঠ করতেন। তিনি বললেন, ‘‘লোকনাথ বাবার এই আচরণ আমায় ছুঁয়ে গিয়েছিল। তার থেকে অনুপ্রাণিত হয়েই আমার এই পদক্ষেপ’।