ফিলিস্তিনের জন্য বড় অর্থ সাহায্য পুনরায় চালু করছে যুক্তরাষ্ট্র

50

২০১৮ সালে ফিলিস্তিনের জন্য অর্থ সাহায্য বন্ধের ঘোষণা দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। তবে দেশটির হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভের একটি সাবকমিটি পুনরায় এই অর্থ সাহায্য চালু করার জন্য সুপারিশ করেছে। এই অর্থ পশ্চিমতীর ও গাজাতে ফিলিস্তিনি এনজিওগুলোকে দেয়া হবে। এ খবর দিয়েছে আল-জাজিরা।
খবরে বলা হয়, নতুন এ সুপারিশের ফলে প্রতি বছর ফিলিস্তিনিদের উন্নয়নে যুক্তরাষ্ট্র ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষকে প্রায় ২৫৫ মিলিয়ন ডলারের বড় সাহায্য করবে। এ সাহায্য এ বছরের ১লা অক্টোবর থেকেই প্রদান শুরু হবে। এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের শান্তি আলোচনায় সম্মত না হওয়ার কারণে ২০১৮ সালে ওই সাহায্য বাতিল করেছিল ট্রাম্প প্রশাসন।
কমিটির সদস্যরা জানান, তারা মনে করেন এই বিল পাশের ফলে ফিলিস্তিনি জনগণ এনজিওগুলোর মাধ্যমে সরাসরি অর্থ সহায়তা পেতে চলেছে। এটি ফিলিস্তিনি জনগণের কাছে বিশ্বাসযোগ্য এমন এনজিওর মাধ্যমেই করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

কমিটি মনে করে এটি ফিলিস্তিনিদের জন্য জীবন রক্ষাকারী ও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন বিল। যুক্তরাষ্ট্র সবসময় বিশ্বজুড়ে স্থিতিশীলতার পক্ষে ছিল এবং এ জন্য যা করা দরকার তা আগ্রহের সঙ্গে করে যাবে বলেও জানায় ওই কমিটি।
২০১৮ সালের পূর্বে যুক্তরাষ্ট্র ফিলিস্তিনের উন্নয়নে বছরে প্রায় ২০০ মিলিয়ন ডলার সাহায্য পাঠাত। তবে এ বছর ট্রাম্পের প্রস্তাবিত এক শান্তিচুক্তি মেনে না নেয়ায় ফিলিস্তিনের এ সাহায্য বন্ধ করে দেন তিনি। বাতিল করে দেন জাতিসংঘের ত্রাণ কার্যক্রম। ফিলিস্তিনি শরনার্থীদের ১৯৪৮ সাল থেকে ব্যাপক অর্থ সাহায্য করে আসছিল যুক্তরাষ্ট্র। তাও বাতিল করে দেন ট্রাম্প। তবে নতুন এ সুপারিশের ফলে আবারো চালু হতে যাচ্ছে মার্কিন সাহায্য।