লেবাননের জন্য জাতিসংঘের সাড়ে ৫৬ কোটি ডলারের তহবিল গঠন

79

চলতি মাসের শুরুর দিকে ভয়াবহ বিস্ফোরণে বৈরুত শহর কার্যত ধ্বংস হয়ে গেছে। ঘরবাড়ি হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে বাস করছে প্রায় তিন লাখ অধিবাসী। রাসায়নিক বিস্ফোরণে বিধ্বস্ত এ দেশটির রাজধানী বৈরুত পুনর্গঠনে ৫৬.৫ কোটি ডলারের তহবিল গঠনের ঘোষণা দিয়েছে জাতিসংঘ। সহায়তা তহবিলে অর্থদানে সদস্য রাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক দাতাগোষ্ঠীগুলোর প্রতি আবেদন জানিয়েছে সংস্থাটি।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে সংস্থাটির কর্মকর্তারা বলেছেন, লেবাননের বিধ্বস্ত অর্থনীতি পুনর্নির্মাণের লক্ষ্যে মানবিক সহায়তার মাধ্যমে দেশটির পাশে দাঁড়িয়েছে জাতিসংঘ।

বিস্ফোরণের কারণে আগে থেকে নানা সংকটে থাকা লেবাননের অর্থনীতি এখন পঙ্গু। দেশটির ভঙ্গুর অর্থনীতি চাঙ্গা করতে ও বিধ্বস্ত রাজধানীর পুনর্গঠনে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ।

জাতিসংঘের উদ্যোগে যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ব্রিটেন ও আরব দেশগুলোসহ আন্তর্জাতিক দাতাগোষ্ঠীগুলোকে নিয়ে একটি সম্মেলনও করেন তিনি, যাতে লেবাননকে ২৫.৫ কোটি ডলার সহায়তার ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায় এবার জাতিসংঘের পক্ষ থেকে ৫৬.৫ কোটি ডলারের তহবিল গঠনের ঘোষণা এলো। এ ব্যাপারে লেবাননে নিযুক্ত জাতিসংঘের মানবিক সহায়তাবিষয়ক সমন্বয়ক নাজাত রুশদি বলেন, লেবাননের জনগণকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা ও দেশটির পুনর্গঠনের কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে।’

দাতাগোষ্ঠীগুলোকে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, লেবাননের জনগণের পাশে দাঁড়াতে আমি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। লেবানন সিরীয় ও ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের প্রতি মহানুভবতা দেখিয়েছে, আর্থিক সহযোগিতার মাধ্যমে এখন তার প্রতিদান দেয়া আমাদের সবার দায়িত্ব।’