অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ নিষিদ্ধ করেছে ইংল্যান্ড

132

ইউরোপের দেশগুলোতে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ দেখা দিয়েছে। যুক্তরাজ্যে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে আবারও লকডাউন ঘোষণা দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। আগামী ৫ নভেম্বর থেকে ২ ডিসেম্বর পর্যন্ত এ লকডাউন স্থায়ী হবে। এছাড়া দেশটিতে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ নিষিদ্ধ করেছে বরিস প্রশাশন।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে লকডাউনের মধ্যে মানুষের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ রেস্তোঁরাগুলো বন্ধ করতে হবে, সামাজিক জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে ইত্যাদি। এছাড়া চার সপ্তাহের জন্য ইংল্যান্ড দেশীয় বা আন্তর্জাতিক যাই হোক না কেন সমস্ত অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ নিষিদ্ধ থাকবে।

দেশটির কর্মকতারা জানিয়েছেন, এটা বলার অপেক্ষা রাখে না যে এই মুহুর্তে অনেকগুলো শিল্প ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, যদিও যুক্তরাজ্যের বিমান সংস্থাগুলো বিশেষত এর দ্বারা কঠোরভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

খবরে বলা হয়, বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ না হলে ব্রিটেনের কোনো দোকান কিংবা সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান খোলা না রাখার নির্দেশ জারি করা হয়েছে। তবে বসন্তের নতুন লকডাউনের মধ্যে স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলো চালু থাকবে।

প্রসঙ্গত, শনিবার যুক্তরাজ্যে আরও ২১ হাজার ৯১৫ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে করোনায় দেশটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩২৬ জনে। করোনায় আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে নবম অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাজ্য।