যুক্তরাষ্ট্রে করোনার টিকা দেয়া শুরু সোমবার

137

যুক্তরাষ্ট্রে সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে করোনার টিকা দেয়া। দেশটির বিশেষজ্ঞরা মার্কিন প্রতিষ্ঠান ফাইজার ও জার্মান প্রতিষ্ঠান বায়োএনটেকের যৌথ উদ্যোগে তৈরি করা কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন জরুরিভিত্তিতে অনুমোদন দেয়ার পর এ পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।

এ লক্ষ্যে সব অঙ্গরাজ্যে প্রথম দফায় ৩০ কোটি ডোজ টিকা পাঠানো হচ্ছে। টিকা সরবরাহে নিযুক্ত কর্মকর্তা জেন গুসটেভ পেরনা এ তথ্য জানিয়েছেন। খবর বিবিসির।

ফাইজারের এ করোনার টিকা ৯৫ শতাংশ কার্যকর প্রমাণ হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) জরুরিভিত্তিতে দেশটিতে অনুমোদন দেয়া হয়।

এমন সময় যুক্তরাষ্ট্রে করোনার টিকাটির অনুমোদন দেয়া হয়, যখন করোনায় দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। শনিবার যুক্তরাষ্ট্রে সর্বোচ্চসংখ্যক ৩ হাজার ৩০৯ জন করোনার রোগী মারা গেছেন।

মার্কিন বিশেষজ্ঞরা বৃহস্পতিবার ফাইজার-বায়োএনটেকের কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন জরুরি অনুমোদন প্রদানের পক্ষে সমর্থন দিয়েছেন।

ফলে গণটিকাদানের পদক্ষেপের ক্ষেত্রে যুক্তরাজ্যের পর আমেরিকার পথ সুগম হয়েছে। এমন একসময় এ ভ্যাকসিন ব্যবহারের অনুমোদন দেয়া হলো, যখন বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত এ দেশে একদিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তিন হাজারেরও অধিক মানুষ প্রাণ হারাল এবং এতে দেশটির মোট মৃত্যু সংখ্যা তিন লাখের মাইলফলকের দিকে এগিয়ে চলছে।

এদিকে উত্তর গোলার্ধের দেশগুলোতে শীতকালে মহামারীর সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ব্রিটেন এ সপ্তাহে প্রথম পশ্চিমা দেশ হিসেবে ফাইজার-বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে।

কানাডা, বাহরাইন ও সৌদি আরবও এ ভ্যাকসিন ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের দেশগুলো সাগ্রহে ভ্যাকসিনগুলোর সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় রয়েছে। এ ব্যাপারে ইউরোপিয়ান ব্লকের নিজস্ব পর্যবেক্ষণ সংস্থা জানিয়েছে, দুই সপ্তাহ ধরে সাইবার আক্রমণ হওয়া সত্ত্বেও এগুলো অনুমোদনের পথে রয়েছে।

ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এএফডিএ) আয়োজিত সভায় স্বাধীন বিশেষজ্ঞরা ১৬ বছর বয়সের ঊর্ধ্বে মানুষের স্বাস্থ্য রক্ষায় দুই ডোজ ভ্যাকসিন প্রদানের জরুরি অনুমোদনের পক্ষে ১৭ ভোট, বিপক্ষে ৪ ভোট দেন। এ ব্যাপারে একজন ভোটদানে বিরত থাকেন।

এ ক্ষেত্রে ভোটাভুটির বাধ্যবাধকতা না থাকলেও সোমবার থেকে আনুষ্ঠানিক জরুরি ব্যবহার অনুমোদন (ইইউএ) আশা করা হচ্ছে।