ইরানের পরমাণু চুক্তি লঙ্ঘনে ইইউর উদ্বেগ

157

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) জানিয়েছে ২০১৫ সালে ছয় পরাশক্তির সাথে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু চুক্তি দেশটি বেশ কিছুবার লঙ্ঘন করেছে। মঙ্গলবার ইইউ মুখপাত্র পিটার স্টানো জানান, নতুন করে ইরানের পরমাণু সমৃদ্ধকরণের কার্যক্রম ‘দুর্ভাগ্যজনক’। তিনি ইরানকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, ‘এই পদক্ষেপ ইরানের পরমাণু অঙ্গীকারের লঙ্ঘন এবং এর ফলাফল হবে গুরুতর।’

অবশ্য, স্টানো চুক্তিটি বজায়ে আন্তর্জাতিক ঐক্যমত ও অঙ্গীকারের ওপরও গুরুত্ব দেন। গত সপ্তাহে মার্কিন অবরোধের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থার অংশ নেয়ার অংশ হিসেবে ইরান ২০ শতাংশ পর্যন্ত ইউরোনিয়াম সমৃদ্ধকরণের পরিকল্পনার ঘোষণা দেয়।

২০১৫ সালে ইরানের সাথে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, রাশিয়া, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য, জার্মানি ও ইইউ ওই পরমাণু চুক্তি স্বাক্ষর করে। ২০১৮ সালে যুক্তরাষ্ট্র একতরফাভাবে চুক্তিটি প্রত্যাহার করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত বছর ইরান চুক্তি মেনে না চলার ঘোষণা দেয়।

২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তি অনুসারে, তেহরান সর্বোচ্চ ৩.৬৭ শতাংশ পর্যন্ত ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করতে পারবে। যুক্তরাষ্ট্রের চুক্তি প্রত্যাহারের পর পাল্টা জবাবে ইরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের নির্ধারিত সীমা লঙ্ঘন করে ৪.৫ শতাংশে নিয়ে যায়।

সংঘাতের শুরু থেকেই যুক্তরাজ্য, জার্মানি ও ফ্রান্সের সাথে ইইউ কূটনীতিকরা ইরানকে চুক্তিকে ফেরানোর জন্য বিভিন্ন কূটনৈতিক মাধ্যমে চেষ্টা করে। সূত্র : ইয়েনি শাফাক