বাইডেনের অভিষেকে যোগ দেবেন ভাইস প্রেসিডেন্ট পেন্স

119

জনরায় প্রত্যাখ্যান কারী বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার সাংবিধানিক দায়িত্ব এড়িয়ে গেলেও ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জোসেফ বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প এতে যোগ দিবেন না জানিয়ে এক টুইট করেছিলেন তার টুইটার একাউন্ট স্হায়ী ভাবে বন্ধ হওয়ার আগে। মার্কিন সংবাদ মাধ্যম সিএনএন বিশ্বস্ত সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে এখবর জানায়। এর আগে ভাইস প্রেসিডেন্ট শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠানে হাজির থাকার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। তবে তিনি আনুষ্টানিক ভাবে আমন্ত্রণ পাওয়ার অপেক্ষায় ছিলেন। নতুন প্রেসিডেন্ট বাইডেন আগেই বলেছেন তার অভিষেক অনুষ্ঠানে ভাইস প্রেসিডেন্ট পেন্সের উপস্হিতিকে স্বাগত জানানো হবে। মাইক পেন্স শপথ গ্রহনে উপস্হিত থাকলে তিনি নিজেকে সম্মানিত বোধ করবেন। আগামী ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেয়ার কথা রয়েছে নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জোসেফ বাইডেনের।
উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্ট বাইডেনের ইলেক্টোরাল ভোটের সার্টিফিকেশন না করতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও তার মিত্রদের অব্যাহত চাপের কাছেও ভাইস প্রেসিডেন্ট পেন্স নতি স্বীকার করেননি। তিনি কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে হাজির হন। আইনসভা ক্যাপিটল হিলে সন্ত্রাসী তান্ডবের পর প্রায় সারা রাত সভায় উপস্হিত থেকে ইলেক্টোরাল ভোটের গননা ও সার্টিফিকেশন সম্পন্ন করেন। পালন করেন তার উপর অর্পিত সাংবিধানিক দায়িত্ব। ক্যাপিটল হিলের সন্ত্রাসী হামলার পরর্বতী ঘটনা প্রবাহে ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের ভূমিকা সকল মহলে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে। বিরোধী ডেমোক্রেট সহ তার নিজের রিপাবলিকান পার্টির অনেক বিবেকবান আইনপ্রণেতা ট্রাম্পকে অফিস থেকে প্রত্যাহার করতে ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ভূমিকা রাখতে পারেন বলে আশা করছেন।