এলন মাস্ককে হটিয়ে আবার শীর্ষ ধনী জেফ বেজোস

170

সপ্তাহজুড়ে রীতিমতো মল্লযুদ্ধ করেছে দুই শীর্ষ ধনী। একবার জেফ বেজোস শীর্ষ ধনী হন, তো পরের দিনই পতন। তখন এলন মাস্ক হয়ে পড়েন বিশ্বের শীর্ষ ধনী। আবার পরের দিনই দান উল্টে যায়। তবে এলন মাস্ক বিশ্বের শীর্ষ ধনী—এই সংবাদটিই ছিল আলোড়ন সৃষ্টিকারী। তবে সপ্তাহ যখন শেষ হলো, দেখা গেল অনলাইনে পণ্য বিক্রির বৈশ্বিক প্রতিষ্ঠান আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও জেফ বেজোস আবার তাঁর আসন ফিরে পেয়েছেন।

গত শুক্রবার ছিল যুক্তরাষ্ট্রে শেয়ারবাজার লেনদেনের শেষ দিন। দিনের লেনদেন যখন শেষ হলো, তখন দেখা গেল পিছিয়ে পড়েছেন টেসলা ও স্পেসএক্সের মালিক এলন মাস্ক।

গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের শেয়ারবাজারে একটু খারাপ দিনই গেছে। আগের রাতেই সদ্য নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ১ দশমিক ৯ ট্রিলিয়ন ডলারের করোনার প্রণোদনা প্যাকেজ প্রস্তাব দিলেন। ওদিকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দ্বিতীয়বারের মতো অভিশংসনের মুখোমুখি হলেন। আবার সামনে করহার বাড়ানোর একটি সম্ভাবনার কথাও বলা হচ্ছে। এসবেরই প্রভাব পড়েছে আমাজন ও টেসলার শেয়ারদরে।
শুক্রবার লেনদেন শেষের পর আমাজনের শেয়ার দর ১ শতাংশ কমে আর টেসলার কমে ২ শতাংশ। ব্যস বেজোসকে আর কে ঠেকায় মাস্ককে হটিয়ে আবার সর্বোচ্চ ধনীর খেতাব বাগিয়ে নিতে। বাইডেনের প্রণোদনা প্যাকেজের ঘোষণায় টেক শেয়ারের দরও কমে যায়। প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণার প্রভাবে যুক্তরাষ্ট্রের ডাউ জোনস শিল্প সূচক কমেছে গড়ে শূন্য দশমিক ৯ শতাংশ। আর নাসডাক ও এসঅ্যান্ডপি ৫০০ সূচক কমেছে ১ দশমিক ৫ শতাংশ হারে।

শেয়ারবাজারের এই হঠাৎ পরিবর্তন বেজোস ছাড়াও আরও অনেক শীর্ষ ধনীর ভাগ্যের চাকায় পরিবর্তন এসেছে। যেমন চীনের মা হুয়াতেং, যাকে সবাই পনি মা নামেই চেনেন। টেনসেন্ট হোল্ডিংসের চেয়ারম্যান মা হুয়াতেং দেশটির সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাপ ওয়েইবির মালিক। তাঁর সম্পদ বেড়েছে ৬৬০ কোটি ডলার। ফলে তাঁর এখন মোট সম্পদ দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ২৮০ কোটি ডলার।

এবার যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে যাই। দেখা যাচ্ছে জুম ভিডিও কমিউনিকেশনের প্রতিষ্ঠাতা এরিক ইউয়ানের সম্পদ ১৫০ কোটি ডলার বেড়ে হয়েছে ১ হাজার ৭০০ কোটি ডলার। এ ছাড়া এয়ারবিএনবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ও প্রতিষ্ঠাতা ব্রায়ান চেসকির সম্পদ ১৪০ কোটি ডলার বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ১ হাজার ২৯০ কোটি ডলার। গত এক সপ্তাহে তাদের শেয়ারের দর বেড়েছে ১৩ শতাংশ। ‘ফোর্বস’ ১০ শীর্ষ ধনীর নাম প্রকাশ করেছে, যাঁদের ভাগ্য ৮ থেকে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত শেয়ারবাজারে একটু বেশিই ভালো গেছে।

১. মা হুয়াতেং
সম্পদের পরিমাণ: ৬ হাজার ২৮০ কোটি ডলার
সম্পদ বৃদ্ধি: ৬৬০ কোটি ডলার
দেশ: চীন
আয়ের উৎস: ইন্টারনেট মিডিয়া

২. চেন ঝিপিং
সম্পদের পরিমাণ: ১ হাজার ৮৭০ কোটি ডলার
সম্পদ বৃদ্ধি: ৩১০ কোটি ডলার
দেশ: চীন
আয়ের উৎস: ই-সিগারেট

৩. ঝ্যাং ঝিডং
সম্পদের পরিমাণ: ২ হাজার ২৩০ কোটি ডলার
সম্পদ বৃদ্ধি: ২৪০ কোটি ডলার
দেশ: চীন
আয়ের উৎস: ইন্টারনেট মিডিয়া

৪. মাসায়োসি সন
সম্পদের পরিমাণ: ৪ হাজার ৫০ কোটি ডলার
সম্পদ বৃদ্ধি: ২৩০ কোটি ডলার
দেশ: জাপান
আয়ের উৎস: ইন্টারনেট, টেলিকম

৫. ঝং হুইজুয়ান
সম্পদের পরিমাণ: ২ হাজার ৩৫০ কোটি ডলার
সম্পদ বৃদ্ধি: ২০০ কোটি ডলার
দেশ: চীন
আয়ের উৎস: ওষুধশিল্প

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন
এলন মাস্কের সফলতার ছয় রহস্য
এলন মাস্কের সফলতার ছয় রহস্য
৬. ডুলসে পাগলিস ডে গোডয় বুয়েনো
সম্পদের পরিমাণ: ৫৪০ কোটি ডলার
সম্পদ বৃদ্ধি: ১৯০ কোটি ডলার
দেশ: ব্রাজিল
আয়ের উৎস: হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যসেবা

৭. জুহাউ কুনফি
সম্পদের পরিমাণ: ১ হাজার ৮৬০ কোটি ডলার
সম্পদ বৃদ্ধি: ১৬০ কোটি ডলার
দেশ: হংকং
আয়ের উৎস: স্মার্টফোনের স্ক্রিন

৮. ক্যামিলা ডে গোডয় বুয়েনো গোরোসি
সম্পদের পরিমাণ: ২৭০ কোটি ডলার
সম্পদ বৃদ্ধি: ১৫০ কোটি ডলার
দেশ: ব্রাজিল
আয়ের উৎস: মেডিকেল ল্যাব

৯. এরিক ইউয়ান
সম্পদের পরিমাণ: ১ হাজার ৬৯০ কোটি ডলার
সম্পদ বৃদ্ধি: ১৫০ কোটি ডলার
দেশ: যুক্তরাষ্ট্র
আয়ের উৎস: ভিডিও কনফারেন্সিং

১০. ব্রায়ান চেসকি
সম্পদের পরিমাণ: ১ হাজার ২৯০ কোটি ডলার
সম্পদ বৃদ্ধি: ১৪০ কোটি ডলার
দেশ: যুক্তরাষ্ট্র
আয়ের উৎস: এয়ারবিএনবি