যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম মুসলিম নারী অ্যাটর্নি হচ্ছেন সায়মা

183

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের মতো একজন মুসলিম নারী দেশটির অ্যাটর্নি হিসেবে নিযুক্ত হচ্ছেন। সায়মা মহসিন নামের ওই নারী ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহেই মিশিগান অঙ্গরাজ্যে ডেট্রয়েটের শীর্ষ ফেডারেল প্রসিকিউটরের দায়িত্ব নেবেন।

ডেট্রয়েটের প্রভাবশালী দৈনিক ডেট্রয়েট ফ্রি প্রেস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সায়মা মহসিন প্রথম মুসলিম নারী যিনি মিশিগান তথা যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম অ্যাটর্নি হচ্ছেন। আগামী ২ ফেব্রুয়ারি থেকে সায়মা বর্তমান ইউএস অ্যাটর্নি ম্যাথু স্নাইডারের পদে ভারপ্রাপ্ত ইউএস অ্যাটর্নি ফর দ্য ইস্টার্ন ডিস্ট্রিক্ট অব মিশিগানের দায়িত্ব নেবেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, তিন বছর দায়িত্ব পালনের পর ২১ জানুয়ারি স্নাইডার পদত্যাগের ঘোষণা দেন, যা ১ ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর হবে। আর ২ ফেব্রুয়ারি থেকে তাঁর পদে ফার্স্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট ইউএস অ্যাটর্নি সায়মা মহসিন স্থলাভিষিক্ত হবেন।

ম্যাথু স্নাইডার বলেন, পরিচিত ফেডারেল প্রসিকিউটরদের একজন সায়মা মহসিনের হাতে এই অফিস ছেড়ে চলে যেতে পেরে তিনি সন্তুষ্ট। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম নারী ও মুসলিম অভিবাসী ইউএস অ্যাটর্নি হিসেবে তাঁর সেবা সত্যিই ঐতিহাসিক।

সায়মা মহসিন নিউজার্সির রাটগার্স ইউনিভার্সিটি থেকে আইন বিষয়ে পড়াশোনা করেছেন। তিনি নিউইয়র্ক সিটিতে সহকারী ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি ও পরে নিউজার্সি স্টেটের ফৌজদারি বিচার বিভাগে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন
এক বিবৃতিতে সায়মা মহসিন বলেন, ভারপ্রাপ্ত অ্যাটর্নি হিসেবে মিশিগানের পূর্বাঞ্চলীয় নাগরিকদের সেবা করার সুযোগ পাওয়া অত্যন্ত সম্মানের। সবার জন্য ন্যায় বিচার নিশ্চিত করতে আমি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

পাকিস্তানে জন্ম নেওয়া ৫২ বছর বয়সী সায়মা মহসিন কয়েক দশক ধরে ফেডারেল প্রসিকিউটর ছিলেন। ২০০২ সাল থেকে মিশিগানে তিনি ইউএস অ্যাটর্নি অফিসে কাজ করছেন। তিনি নিউজার্সির রাটগার্স ইউনিভার্সিটি থেকে আইন বিষয়ে পড়াশোনা করেছেন। নিউইয়র্ক সিটিতে সহকারী জেলা অ্যাটর্নি ও পরে নিউজার্সি স্টেটের ফৌজদারি বিচার বিভাগে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।