অলিম্পিকে মশাল ধরবেন ১১৮ বছরের তানাকা

105

আধুনিক অলিম্পিকের সমবয়সী তিনি। ১১৮ বছর বয়স। অলিম্পিকের মশাল ধরতে যাওয়া সবচেয়ে বেশি বয়সী মানুষ হতে যাচ্ছেন কানে তানাকা নামের এই জাপানি নারী।

তবে এতে তাকে সহায়তা করবেন তার নাতি-নাতনিরা। এর আগে ২০১৬ সালে রিও সামার গেমসে ব্রাজিলের ১০৬ বছরের আইদা জেমাঙ্কু অলিম্পিকের মশাল তুলেছিলেন। তার আগে ২০১৪ সালে ১০১ বছরের রুশ টেবিল টেনিস খেলোয়াড় আলেজান্ডার ক্যাপতারেনকো শীতকালীন অলিম্পিকের মশাল হাতে নেন। এবার পালা কানে তানাকার। জীবনের একটি শতাব্দী পার করার মধ্যে দুবার ক্যানসার জয় করেছেন তিনি। একজোড়া মহামারির সাক্ষী এই নারী। আগামী মে মাসে জাপানে অনুষ্ঠিত হচ্ছে অলিম্পিক গেমস। আর সেখানেই মশাল হাতে দেখা যাবে এই বৃদ্ধাকে। মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএনের খবরে এমন তথ্য মিলেছে। এ বছর জাপানের ফুকুওকার অলিম্পিকে মশাল নিয়ে হাঁটবেন বিশ্বের প্রবীণতম এই নারী। এক্ষেত্রে তানাকার পরিবার তাকে ১০০ মিটার হুইলচেয়ারে করে পাঠাবেন। তার পর মশাল হাতে কয়েক পা হাঁটতে দেখা যাবে তাকে।

তানাকা বলেন, এই অনুষ্ঠানের জন্য জানুয়ারিতে নতুন এক জোড়া জুতোও পেয়েছেন তিনি। এই বিষয়ে তানাকার নাতি ষাটোর্ধ্ব ইজি তানাকা বলেন, ১১৮ বয়সে এসেও বেশ দারুণভাবে জীবনযাপন করছেন আমার দাদি। খুবেই স্বতস্ফূর্ত। অলিম্পিকে মশাল নেওয়া সত্যিই বড় ব্যাপার। আশা করি, তানাকাকে দেখে গোটা বিশ্ব অনুপ্রাণিত হবে।