টেস্ট খেলতে চান না, বিসিবির এমন মন্তব্য অস্বীকার সাকিবের

108

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আসন্ন টেস্ট সিরিজ না খেলে আইপিএলের জন্য বিবিসি থেকে আগেই ছুটি নিয়ে রেখেছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। কিন্তু এর কারণ হিসেবে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন দাবি করেছিলেন, টেস্ট খেলতে চান না সাকিব। তাই তাকে আইপিএল খেলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। সাকিবের কাছ থেকে এই নিয়ে এতদিন কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

অবশেষে মুখ খুলেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক এই অধিনায়ক। তার মন্তব্য, ‘ছুটির অনুমতি চেয়ে পাঠানো চিঠিটি বিসিবি ঠিকভাবে পড়েনি। সেই চিঠিতে কোথাও উল্লেখ করা হয়নি যে আমি টেস্ট খেলবো না। এমন কোনো কিছুই সেখানে বলা হয়নি।’

শনিবার (২০ মার্চ) ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকফ্রেঞ্জিতে এক লাইভ আড্ডায় তিনি এসব কথা বলেন। সাকিব বলেন, ‘আইপিএল খেলা আমার জন্য ভারতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেরা প্রস্তুতি হবে। তাই এ সিদ্ধান্ত নেওয়া।’  নিজ দেশের খেলা বাদ দিয়ে সাকিব আল হাসান ভারতের আইপিএলে খেলতে যাওয়ায় নাখোশ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। গত ২২ ফেব্রুয়ারি বোর্ড সভা শেষে গণমাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছিলেন তিনি। বিসিবি সভাপতি জানান, শুধু সাকিব নয়, দেশের হয়ে কেউ খেলতে না চাইলে কাউকে জোর করা হবে না। এছাড়া এখন থেকে ক্রিকেটাররা চুক্তির সময় কে কোন ফরমেটে খেলতে চায় তা লিখিত নেওয়া হবে।

পাপনের ভাষায়, সাকিবের দেশের প্রতি নিবেদন নিয়ে প্রশ্ন তুলতে চাই না, আমি ধরে নিচ্ছি টেস্ট ক্রিকেট ওর পছন্দ না। এদের দিয়ে টেস্টে কিছু হবে না। পাপনের মতে, ‘শুধু ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ না, আমরা হেরেছি আফগানিস্তানের সাথে, আমরা হেরেছি পাকিস্তানের সাথে, আমরা ভারতের সাথে বাজেভাবে হেরেছি এবং ঘরের মাঠে দুটো টেস্ট হারলাম। এরপরে কেউ যদি বলে আমি টেস্ট খেলব না ফ্র্যাঞ্চাইজি খেলব, তাহলে এরপরে আর কিছু বলার থাকে না। আমাদের মাইন্ড ক্লিয়ার, কাউকে আমরা জোর করে রাখব না।” এদিকে, সম্প্রতি তৃতীয় সন্তানের বাবা হয়েছেন সাকিব। সে জন্য বর্তমানে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে শ্বশুর বাড়িতে অবস্থান করছেন।