আফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্য প্রত্যাহার নিয়ে অনিশ্চয়তা

127

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সম্প্রতি আফগানিস্তান থেকে আমেরিকান সৈন্য প্রত্যাহার এবং যুক্তরাষ্ট্রের এই দীর্ঘতম যুদ্ধ পরিসমাপ্তির ঘোষণা দেয়া সত্ত্বেও এবং সামরিক পরিকল্পনাবিদরা, কয়েক মাস ধরে এ নিয়ে আলোচনার পরও, এখনও ‘এর বাস্তবায়নের দিক নিয়ে ভাবছেন। আফগানিস্তান থেকে ২,৫০০ থেকে ৩,৫০০সৈন্য প্রত্যাহার সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানাতে প্রতিরক্ষা দপ্তর গতকাল অস্বীকৃতি প্রকাশ করেছে, তবে বলেছে প্রাথমিক পরিকল্পনাগুলো এখন হাল নাগাদ করা হচ্ছে এবং চূড়ান্ত কাজ খুই শিগগিরই সম্পন্ন করা হবে। কর্মকর্তারা এই সম্ভাবনার কথাও বলেন যে সৈন্যদের নিয়ম মত প্রত্যাহারের সময়ে তাদের নিরাপত্তা বিধানের জন্য সাময়িক ভাবে কিছু সৈন্য পাঠানো যেতে পারে।

পেন্টাগনের প্রেস সচিব জন কার্বি গতকাল সংবাদদাতাদের বলেন, “কাছাকাছি সময়ে আমরা আরও কিছু জানবো কিন্তু সবটাই সম্ভাব্য। আজই আমি বলতে পারবো না সেটা ঠিক কেমন হবে। এটাতো যুক্তিসঙ্গত বিষয় যে আপনাকে কিছু প্রায়েগিক সাহায্য নিতে হতে পারে, কিছু প্রকৌশলগত সাহায্যও এবং সৈন্যদের সুরক্ষার ব্যবস্থাও নিতে হবে”।

এ দিকে তালিবান গত বুধবার এক বিবৃতিতে, গত বছর দোহা চুক্তিতে ব্যক্ত তারিখের মধ্যে সব বিদেশি সৈন্য সরিয়ে নেওয়ার দাবি জানিয়েছে। তাদের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ টুইটারে হুমকি দিয়ে লিখেছেন, “সেই চুক্তি যদি ভঙ্গ করা হয় এবং সুনির্দিষ্ট তারিখের মধ্যে বিদেশি সৈন্য যদি ফেরত না যায়, তা হ’লে সমস্যা বহুগুণ বেড়ে যাবে এবং যারা ঐ চুক্তি বাস্তবায়নে ব্যর্থ হবে তাদেরকে দায়ী করা হবে”।