যুক্তরাষ্ট্রে জন্মদিনের পার্টিতে গুলি, নিহত ৭

125

যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো অঙ্গরাজ্যে জন্মদিনের একটি পার্টিতে গুলির ঘটনা ঘটেছে। সেখানে এক বন্দুকধারীর গুলিতে ছয় ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। পরে বন্দুকধারী আত্মহত্যা করেছেন। স্থানীয় সময় গতকাল রোববার মধ্যরাতে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি এ তথ্য জানায়।

পুলিশ জানিয়েছে, অঙ্গরাজ্যের কলোরাডো স্প্রিংস শহরের একটি মোবাইল হোম পার্কে এই গুলির ঘটনা ঘটে। সেখানে একটি জন্মদিনের পার্টিতে লোকজন জড়ো হয়েছিল।

কলোরাডো স্প্রিংস পুলিশ বলছে, তারা একটি জরুরি ফোন পেয়েই তাতে দ্রুত সাড়া দেয়। তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে ছয়জন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ লাশ দেখতে পায়। এ ছাড়া আরেকজন প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষকে আহত অবস্থায় পায়। তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে তাঁর মৃত্যু হয়।

এক বিবৃতিতে পুলিশ বলেছে, সন্দেহভাজন হামলাকারী এক নারী ভুক্তভোগীর ছেলেবন্ধু। হামলাকারী বাসার ভেতরে ঢুকে করে জন্মদিনের পার্টিতে থাকা লোকজনের ওপর নির্বিচারে গুলি করতে থাকেন। পরে তিনি তাঁর নিজের জীবনও নিয়ে নেন।

পুলিশ বলছে, ঠিক কী কারণে এ হামলা চালানো হয়েছে, তা তারা এখনো জানে না। হামলার উদ্দেশ্য জানতে তদন্ত চলছে।

জন্মদিনের পার্টিতে শিশুরাও উপস্থিত ছিল। তবে এ ঘটনায় কোনো শিশু হতাহত হয়নি।

হামলায় যাঁরা নিহত হয়েছেন, তাঁদের নাম-পরিচয় জানানো হয়নি। এ ছাড়া হামলাকারীর পরিচয়ও জানায়নি পুলিশ।

কলোরাডো স্প্রিংস শহরের মেয়র জন সোথারস বলেছেন, এই সহিংস ঘটনায় কমিউনিটি শোকাহত। তিনি ভুক্তভোগী ও তাঁদের পরিবারের জন্য প্রার্থনা করতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

২০১৫ সালের অক্টোবরের পর এ নিয়ে কলোরাডো স্প্রিংস শহরে তিনটি নির্বিচারে গুলির ঘটনা ঘটল।

সাম্প্রতিক সময়ে যুক্তরাষ্ট্রে বেশ কিছু গুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে হতাহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

গত বছর যুক্তরাষ্ট্রে আগ্নেয়াস্ত্র–সংশ্লিষ্ট সহিংসতায় ৪৩ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণের পক্ষে দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণে তিনি সম্প্রতি কয়েকটি নির্বাহী আদেশ জারি করেছেন। একই সঙ্গে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে আগ্নেয়াস্ত্র সহিংসতাকে মহামারির সঙ্গে তুলনা করেছেন।