লকডাউনে গোপনে বিয়ে সারলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

53

করোনাকালে লকডাউনের মধ্যে অনেকটা গোপনেই বিয়ে সারলের ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার পর বিয়ে করার নজির ব্রিটেনে গত ২০০ বছরের মধ্যে ছিল না। খবর বিবিসি ও ডয়েচে ভেলের।

এর আগে ১৮২২ সালে রবার্ট জেনকিনসন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণের পর বিয়ে করেছেন। সে হিসাবে বরিস জনসন দ্বিতীয় ব্যক্তি, যিনি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থাকাবস্থায় বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন।

শনিবার ওয়েস্টমিনস্টার ক্যাথেড্রালে বাগদত্তা ক্যারি সায়মন্ডসের (৩৩) সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন বরিস জনসন (৫৬)। এটি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর তৃতীয় বিয়ে।

মাত্র কয়েকজন ঘনিষ্ঠ স্বজনকে ডাকা হয়েছিল তাদের বিয়েতে। লকডাউনের কারণে ইতোমধ্যে ইংল্যান্ডে বিয়ের অনুষ্ঠানে ৩০ জনের বেশি লোক জমায়েত হওয়ার অনুমতি নেই।

২০১৯ সালে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরই ক্যারিকে নিয়ে ডাউনিং স্ট্রিটে বসবাস করে আসছেন বরিস। উইলফ্রেড নামে তাদের এক বছরের একটি ছেলে আছে। ২০২০ সালেই বিয়ে করার কথা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে তা পিছিয়ে যায়।

এর আগে গণমাধ্যম জানায়, আগামী গ্রীষ্মে বিয়ে করতে যাচ্ছেন বরিস জনসন ও তার বান্ধবী ক্যারি সায়মন্ডস। আমন্ত্রণপত্রে বিয়ের তারিখ হিসেবে ২০২২ সালের ৩০ জুলাইয়ের কথা উল্লেখ করা হয়েছিল। তবে গোপন রাখা হয়েছিল বিয়ের স্থানসহ বিস্তারিত তথ্য।

ক্যারি ডাউনিং স্ট্রিটে বসবাসকারী প্রথম অবিবাহিত যুগল। তাদের একটি ছেলেসন্তান রয়েছে। বরিসের আগের স্ত্রীর নাম ম্যারিনা হোয়েলার। ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে তারা আলাদা হয়ে যান। হোয়েলারের আগে আরেক নারীকে বিয়ে করেছিলেন বরিস।