আড়ি পাতা হয়েছে সরকার প্রধান, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রীদের ফোনেও

45

পানামা পেপারসের পর এবার পেগাসাস প্রজেক্ট। পানামা পেপারস প্রকাশ করে দিয়েছিল বিশ্বের বিভিন্ন শক্তিধর মানুষের অবৈধ অর্থের অফসোর বিনিয়োগের খবর। আর এবার পেগাসাস প্রজেক্ট প্রকাশ করে দিয়েছে বিভিন্ন দেশের সরকার প্রধান, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রীপরিষদের সদস্য, কূটনীতিক, সাংবাদিক, রাজনীতিক, অধিকারকর্মী, ব্যবসায়ীর ফোনে আড়ি পাতার খবর। এ খবরে সরকার প্রধান, প্রধানমন্ত্রী, কূটনীতিক সহ সারা বিশ্বে সংশ্লিষ্টদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। কার ফোনে আড়ি পাতা হয়েছে। কি কথোপকথন রেকর্ড করা হয়েছে তা নিয়ে এক হিম আতঙ্ক দেখা দিয়েছে চারদিকে। পানামা পেপারস কেলেঙ্কারিতে আইসল্যান্ডের তখনকার প্রধানমন্ত্রী সিগমুন্দুর ডেভিড গানল্যাংসন পদত্যাগ করতে বাধ্য হন। সুপ্রিম কোর্ট পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফকে অযোগ্য ঘোষণা করে।

এবার সবার মধ্যে আতঙ্ক কার আবার কপাল পোড়ে! কোন কোন দেশে এই নজরদারি করা হয়েছে তা পরিষ্কার জানা না গেলেও সবচেয়ে বেশি ফোনকলে আড়ি পাতা হয়েছে ১০টি দেশে। এসব দেশ হলো আজারবাইজান, বাহরাইন, হাঙ্গেরি, ভারত, কাজাখস্তান, মেক্সিকো, মরক্কো, রোয়ান্ডা, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। বিশেষ করে জোর দেয়া হয়েছে সৌদি আরবের ভিন্নমতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যাকা-ের পর ৩৭টি স্মার্টফোনে। এসব ফোন ব্যবহার করেন সাংবাদিক, মানবাধিকারকর্মী, ব্যবসায়ী নির্বাহী এবং দু’জন নারী। ইসরাইলের নজরদারীকারী প্রতিষ্ঠান এনএসও গ্রুপ আবিষ্কৃত পেগাসাস সফটওয়্যার ব্যবহার করে এই আড়ি পাতা হয়েছে। বিষয়টি প্রকাশ করেছে লন্ডনের দ্য গার্ডিয়ান, যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন পোস্ট ও ১৫টি অন্যান্য মিডিয়া। এতে বলা হয়েছে, কর্তৃত্ববাদী সরকারগুলো এনএসও গ্রুপের আবিস্কৃত পেগাসাস সফটওয়ার ব্যবহার করেছে আড়ি পাতার জন্য। স্পর্শকাতর এই সফটওয়্যার দিয়ে আড়ি পাতা হয়েছে ব্যবহারকারীর স্মার্টফোনকে আক্রান্ত করে সেখান থেকে তথ্য চুরি করতে। এর মধ্যে প্রতিটি কন্টাক্ট নাম এবং ফোন নম্বর হাতিয়ে নেয়া হয়েছে। টেক্সট ম্যাসেজ, ইমেইল, ফেসবুকের ম্যাসেজ, স্কাইপ, হোয়াটসঅ্যাপ, ভাইবার, উইচ্যাট এবং টেলিগ্রামের সব তথ্য নিয়ে নিয়েছে সংশ্লিষ্টরা। তবে কোন কোন দেশের সরকার প্রধান, প্রধানমন্ত্রীর ফোনে আড়ি পাতা হয়েছে, তা এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পরিষ্কারভাবে জানা যায়নি। এটা জানা গেছে বার্তা সংস্থা এএফপি, দ্য ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল, সিএনএন, নিউ ইয়র্ক টাইমস, আল জাজিরা, ফ্রান্স ২৪, রেডিও ফ্রি ইউরোপ, মিডিয়াপার্ট, এল পাইস, এপি, লে মন্ডে, ব্লুমবার্গ, ইকোনমিস্ট, রয়টার্স ও ভয়েস অব আমেরিকার সাংবাদিদের বিরুদ্ধে আড়ি পাতা হয়েছে।
ওয়াশিংটন পোস্টের খবর অনুযায়ী সৌদি আরবের সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে টার্গেট করে হত্যা করার পর খাসোগির সঙ্গে খুব ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল এমন দু’জন নারীর বিরুদ্ধে আড়ি পাতা হয়েছিল। ২০১৮ সালের অক্টোবরে তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি আরবের কনস্যুলেটের ভিতরে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয় খাসোগিকে। এর মাত্র কয়েকদিন পরেই তার বাগদত্তা হ্যাটিস চেঙ্গিসের ফোনে মেলওয়্যার পাঠিয়ে আক্রান্ত করা হয়। এরপর তার ফোনে আড়ি পাতা হয়।