আফগানিস্তানের ৯০ শতাংশ সীমান্ত তালেবানের দখলে

51

আফগানিস্তানে অব্যাহত রয়েছে তালেবানের অগ্রযাত্রা। দেশটির বাণিজ্য পরিচালনা করা হয় এমন ৯০ শতাংশ সীমান্ত দখলে নেওয়ার দাবি করেছে তালেবান।

বৃহস্পতিবার রাশিয়ার গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে এ দাবি করেন তালেবানের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ। খবর গালফ নিউজের।

সংগঠনটির মুখপাত্রের দাবি, তালেবান বর্তমানে আফগানিস্তানের ৯০ শতাংশ সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ করে।

মুজাহিদ বলেন, তাজিকিস্তান, উজবেকিস্তান, তুর্কমেনিস্তান এবং ইরানের সঙ্গে সীমান্ত এলাকাসহ ৯০ শতাংশ সীমান্ত আমাদের দখলে রয়েছে।

গালফ নিউজের খবরে বলা হয়, আরআইএ নভোস্তি নিউজ এজেন্সিকে তালেবানের মুখপাত্রের দেওয়া সাক্ষাৎকারে সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দেওয়া বক্তব্যের সত্যতা নিশ্চিত করা যায়নি।

যুক্তরাষ্ট্র এবং ন্যাটোর সেনা আফগানিস্তান থেকে প্রত্যাহার শুরুর পর থেকেই তালেবান দেশটির বিভিন্ন এলাকা দখলে নেওয়া শুরু করে। এরপর দখলে নিয়েছে বেশ কয়েকটি স্থলবন্দর। বিভিন্ন শহর দখলে নেওয়ার জন্য লড়ছে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে।

এর আগে তালেবানের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছিল, আফগানিস্তানের ৮৫ শতাংশ এলাকা তালেবানের দখলে রয়েছে।

তালেবান দেশকে দখলে নিলে সেখানে জঙ্গিগোষ্ঠী সক্রিয় হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। যদিও বিষয়টি নিয়ে চিন্তার কিছু নেই বলে জানিয়ে দিয়েছে তালেবান।

সাক্ষাৎকারে তালেবানের মুখপাত্র বলেন, তালেবান কোনোভাবেই আফগানিস্তানে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসকে সহ্য করবে না। তাদের স্থান আফগানিস্তানে হবে না।

তিনি বলেন, আমি আপনাদের নিশ্চয়তা দিচ্ছি, আমাদের দেশে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসকে সক্রিয় হতে দেব না।

সাক্ষাৎকারে মুজাহিদ জানিয়ে দেন যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের পর কোনো বিদেশি সেনাকে আফগানিস্তানে মেনে নেবে না তালেবান।

দীর্ঘ ২০ বছরের যুদ্ধের ইতি ঘটিয়ে আফগানিস্তান ছাড়ছে যুক্তরাষ্ট্র ১১ সেপ্টেম্বর। এরমধ্যে তালেবান দেশটির বিভিন্ন এলাকা দখলে নিচ্ছে। বহু জায়গা দখলে নেওয়ার জন্য লড়ছে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে।