ওয়াশিংটন ডিসিতে ৩,৪,৫ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক মানের ফোবানা অনুষ্ঠিত হবে

20

উত্তর আমেরিকা প্রবাসীদের সাথে দেশের সেতুবন্ধনকে আরো জোরদার এবং আন্তর্জাতিকমানের সম্মেলন উপহার দেয়ার প্রত্যয় ঘোষণা করেছেন ৩৫তম ফোবানা সম্মেলনের একাংশের নেতৃবৃন্দ। মহামারী করোনার মধ্যেও সিডিসি’র স্বাস্থ্য বিধি মেনে সজিব ও সচল পৃথিবী ও সামাজিক অঙ্গীকারে এই সম্মেলন আয়োজন করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের লেবার ডে উকেন্ডে অর্থাৎ আগামী ৩, ৪ ও ৫ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটন ডিসি সংলগ্ন ভার্জির্নিয়া রাজ্যের আলিংটনের হিলটন ক্রিস্টাল সিটিতে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনে থাকবে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর, ঢাকা বিশ্ববিদালয়ের জন্মশত বার্ষিকীর অনুষ্ঠান ছাড়াও ব্যবসা-বাণিজ্য ও সাংবাদিকতা বিষয়ক সেমিনার। আরো থাকবে দেশ ও প্রবাসের শিল্পীদের নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। আমেরিকার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও মূলধারার রাজনীতিক সহ বাংলাদেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি থাকবেন। সম্মেলনের আয়োজক সংগঠন হচ্ছে ‘স্বাদেশ’ নামক সামাজিক সংগঠন। খবর ইউএনএ’র।
নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের একটি মিলনায়নে গত ২১ আগষ্ট শনিবার অপরাহ্নে আয়োজিত এক সাংবাদ সম্মেলনে মোহাম্মদ হোসেন খান ও কাজী সাখাওয়াত হোসেন আজম নেতৃত্বাধীন ফোবানার নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত তথ্য জানান।
সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফোবানা সম্মেলনের কনভেনর শরাফত হোসেন বাবু। এরপর পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত পাঠ এবং করোনায় মৃত্যুবরণকারীদের বিদেহী আতœার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়ার পর ফোবানা সম্মেলন বিষয়ে লিখিত বক্তব্য রাখেন সম্মেলনের মেম্বার সেক্রেটারী কবীরুল ইসলাম।
পরবর্তীতে উপস্থিত সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন ফোবানার চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হোসেন খান, এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারী কাজী সাখাওয়াত হোসেন আজম, কনভেনর শরাফত হোসেন বাবু ও কো-চেয়ারম্যান আলী ইমাম। এক পর্যায়ে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ফোবানার সাবেক কনভেনর শাহ নেওয়াজ, জনপ্রিয় ও প্রবীণ অভিনেতা আহমদ শরীফ, জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী বেবী নাজনীন এবং মরমী শিল্পী আব্দুল আলীমের কন্যা, সঙ্গীত শিল্পী জোহরা আলীম। এসময় তারা ফোবানা সম্মেলনে যোগদান এবং সম্মেলন সফল করার জন্য প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রতি আহŸান জানান।
সংবাদ সম্মেলনে ফোবানার সাবেক সদস্য সচিব ফিরোজ আলম ও প্রবাসের জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী রানো নেওয়াজ সহ ফোবানা কর্মকর্তাদের মধ্যে মাকসুদুল হক চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
এক প্রশ্নের উত্তরে ফোবানা’র চেয়োরম্যান মোহাম্মদ হোসেন খান জানান, আমরা কোন অনিয়মের কাছে নতি শিকার করবো না। ফোবানা’র নিয়ম-নীতি মেনে, স্বচ্ছতার ভিত্তিতে সম্মেলনের সকল কর্মকান্ড এগিয়ে চলছে। অপর এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, বিভক্ত ফোবানা ঐক্যবদ্ধ করার প্রক্রিয়া চলছে এবং ঐক্যের ব্যাপারে আমরা আশাবাদী।
অপর এক প্রশ্নের উত্তরে মোহাম্মদ হোসেন খান বলেন, আমরা ঐক্যের ব্যাপারে আশাবাদী এবং এই লক্ষ্য অর্জনের কাজ চলছে। তিনি বলেন, আমরা উভয় গ্রæপের নেতৃবৃন্দ দুই সম্মেলনেই অংশ নিতে পারি এবং তার মধ্য দিয়ে ঐক্য প্রক্রিয়া জোরদার হতে পারে।
শরাফত হোসেন বাবু বলেন, আমরা যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও দেশ ও প্রবাসের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের ফোবানা সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানিয়েছি। কভিড পরিস্থিতির কারণে এখনো অনেকের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা যায়নি, তবে আমরা আশাবাদী যে, ইউএস সিনেটর সহ দেশ-বিদেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা সম্মেলনে যোগ দেবেন।
আলী ইমাম বলেন, ফোবানা সম্মেলনে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সেমিনার হবে। আমরা ব্যতিক্রমী সম্মেলন উপহার দেয়ার চেষ্টা করবো।