পাঞ্জশির দখলের পথে তালেবান

30

আফগানিস্তানে তালেবানবিরোধীদের শক্ত এবং শেষ ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত পাঞ্জশির দখলের সন্নিকটে রয়েছে তালেবান। পাঞ্জশিরের প্রবেশপথ সংলগ্ন এলাকা গলবাহার থেকে আল জাজিরার সাংবাদিক এই তথ্য জানিয়েছেন।

আল জাজিরার সাংবাদিক চার্লস স্টার্টফোর্ড বলেন, পাঞ্জশিরে ব্যাপক সংঘর্ষ চলছে। গত দুই ঘণ্টা যাবৎ সংঘর্ষ তীব্র আকার ধারণ করেছে। অঞ্চলটির বাসিন্দাদের মধ্যে ভয় ছড়িয়ে পড়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা যখন এখানে আসি ব্যাপক ধোঁয়া দেখতে পায়। তালেবান সেখানে ব্যাপক গোলাবর্ষণ করেছে। তালেবান পাঞ্জশির দখলের পথে রয়েছে। তারা বিদ্রোহীদের শেষ মুহূর্তের জবাব দিচ্ছেন।

আফগানিস্তানের একেবারে শেষ প্রান্তের প্রদেশ ‘পাঞ্জশির’ নদীর নামেই এই উপত্যকা। কাবুলের মাত্র ৬৫ কিলোমিটার উত্তরপূর্বে হিন্দুকুশ পর্বতমালায় এর অবস্থান।

গত ১৫ আগস্ট তালেবান কাবুল দখল করার পর এই উপত্যকায় বসে বিদ্রোহের ঘোষণা দেন ক্ষমতাচ্যুত আফগান সরকারের ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহ। তার সঙ্গে আছেন গনি সরকারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল বিসমিল্লাহ মোহাম্মদী ও আফগানিস্তানের প্রয়াত মোজাহিদীন কমান্ডার শাহ আহমদ মাসউদের ছেলে আহমদ মাসউদ।

গত কয়েকদিন আগে তালেবান পাঞ্জশির বিদ্রোহীদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানায়। কিন্তু তারা আত্মসমর্পণ করেনি।

পাঞ্জশিরের অন্যতম বিদ্রোহী নেতা আহমাদ মাসউদ বলেন, তালেবানের কাছে পাঞ্জশির হস্তান্তর করা হবে না। তালেবান এই এলাকা দখল করতে চাইলে আমাদের বাহিনী তাদেরকে প্রতিরোধ করতে প্রস্তুত।

এরপর তালেবান সেখানে হামলা শুরু করে। গতকাল তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেন, বিদ্রোহীদের সঙ্গে আলোচনা ব্যর্থ হওয়ায় আমরা অভিযান শুরু করেছি। তালেবান যোদ্ধারা পাঞ্জশিরে প্রবেশ করে অধিকাংশ অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে।