ডেমোক্রেট প্রস্তাবিত বিল পাশ হলে ভাগ্য খুলবে ৭০ লাখ ইমিগ্রান্টের

20

কংগ্রেস ইমিগ্রেশন ইস্যুর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ডেমোক্রেটদের প্রস্তাবিত “বিল্ড ব্যাক বেটার অ্যাক্ট” পাস করলে ৭০ লাখের অধিক আনডকুমেন্টেড ইমিগ্রান্টের বৈধতা লাভের সুযোগ সৃষ্টি হবে। ব্যাপক বিস্তৃত এই বিলটি মাঝারি আয় সম্পন্ন ও শ্রমজীবী পরিবার, শিশু, বয়স্ক আমেরিকান এবং আনডকুমেন্টেড ইমিগ্রান্টদের জন্য সুবিধা সৃষ্টির লক্ষ্যে উত্থাপন করা হবে।

এই প্রস্তাবিত ব্যয়বরাদ্দের মধ্যে কমপক্ষে ১০০ বিলিয়ন ডলার ইমিগ্রান্টদের আইনগত প্রতিনিধিত্ব সম্প্রসারণ ও এসাইলাম ব্যবস্থাকে জোরদার করাসহ ইমিগ্রেশন সংস্কারের সঙ্গে জড়িত কাজে ব্যয় করা হবে বলে হোয়াইট হাউজ সূত্র গণমাধ্যমকে জানিয়েছে। আনডকুমেন্টেড ইমিগ্রান্টদের জন্য সুখবর হলো এই বিলে তাদের সাময়িক সংরক্ষণ ও ওয়ার্ক পারমিট অর্থ্যাৎ প্যারোল দেয়ার কথা বলা হয়েছে, যা আরো প্রায় বিশ লাখ ইমিগ্রান্টকে ‘ভিসা রিক্যাপচার’ পদ্ধতির মাধ্যমে তাদেরকে গ্রীনকার্ড দেয়ার দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। এছাড়া প্রায় দশ লাখ আনডকুমেন্টেড শিশুকে চাইল্ড ট্যাক্স ক্রেডিটের আওতায় আনা হবে।

এই তিনটি কর্মসূচি, অর্থ্যাৎ প্যারোল, ভিসা রিক্যাপচার ও আনডকুমেন্টেড শিশুদের চাইল্ড ট্যাক্স ক্রেডিট খসড়া বিলে অন্তর্ভূক্ত হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত বিলের ভবিষ্যৎ অস্পষ্ট। এটি আইনে পরিণত হবে কিনা তা নির্ভর করছে সিনেটে আলোচনা, ডেমোক্রেটদের চলমান দেনদরবার এবং চূড়ান্ত ভোটের উপর। ডেমোক্রেটদের মূল প্রস্তাব আরো উচ্চাভিলাষী ছিল, যার মধ্যে অন্তর্ভূক্ত ছিল যুক্তরাষ্ট্রে দীর্ঘদিন যাবত বসবাসরত আনডকুমেন্টেড ইমিগ্রান্টদের বৈধতা দিয়ে ধাপে ধাপে তাদেরকে আমেরিকান সিটিজেনশিপ দেয়ার পথে আনার পথ সৃষ্টি করা। খসড়া বিলে তা বাদ পড়েছে। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে আনুমানিক এক কোটি ২০ লাখ বিদেশি অবৈধভাবে বসবাস করছে।

তা সত্বেও খসড়ায় যা রয়েছে তা পাস হলে আনডকুমেন্টে ইমিগ্রান্টদের একটি বড় অংশের আনন্দিত হওয়ার কারণ সৃষ্টি হবে বলে ইমিগ্রান্ট অধিকার প্রবক্তারা মন্তব্য করেছেন। ইমিগ্রেশন হাব এর ডেপুটি ডাইরেক্টর কেরি ট্যালবট এর মতে এটি বিরাট একটি অগ্রগতি। আমরা আশাবাদী যে ৭ মিলিয়নের অধিক আনডকুমেন্টেড ইমিগ্রান্টের জন্য সুখবর আসবে।

উল্লেখ্য, প্রস্তাবিত “বিল্ড ব্যাক বেটার অ্যাক্ট” এর রূপরেখায় ২০১১ সালের জানুয়ারী থেকে যুক্তরাষ্ট্রে কমপক্ষে ৭০ লাখ ৮১ হাজার আনডকুমেন্টেড ইমিগ্রাট বসবাস করছে, যারা প্যারোল কর্মসূচির আওতায় আসার যোগ্য। সেন্টার আমেরিকান প্রগ্রেস নামে একটি প্রগতিশীল পলিসি ইন্সটিটিউট এর মতে এটি আনুডকুমেন্টেড ইমিগ্রান্টদের বড় একটি অংশ, যারা বহু বছর যাবত অনিশ্চিত জীবন কাটিয়েছে। তারা বৈধতা পেলে একটি বড় ধরনের অর্জন হবে।

তবে ইমিগ্রেশন অধিকার প্রবক্তারা একথাও বলেছেন যে, প্যারোল প্রকৃতপক্ষে সিটিজেনশিপের পথ নয়, তবে এটিকে গুরুত্বপূর্ণ প্রথম ধাপ। প্যারোলের আওতায় থাকা ইমিগ্রান্টরা ডিপোর্টেশনের ভীতি থেকে মুক্ত থাকবে, কারণ তাদের কাছে তখন ওয়ার্ক পারমিট ও সোস্যাল সিকিউরিটি কার্ডের মত বৈধ ডকুমেন্ট থাকবে। ওবামার সময়ের নির্বাহী আদেশে ‘ডাকা’র আওতায় থাকা তরুণরা যে সুবিধা ভোগ করছে, প্রস্তাবিত বিলেও আওতায় যেসব ইমিগ্রান্ট আসবে, তারাও একই ধরনের সুবিধা ভোগ করতে পারবে। ওবামার নির্বাহী আদেশ আদালতে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছিল, কিন্তু প্যারোল কর্মসূচি যেহেতু আইন হিসেবে আসবে, সেজন্য এটি আইনগত দিক থেকে তেমন নাজুক নয়।